অমানুষ - শিশু ধর্ষণ

আজকে ফেসবুকে একটা নিউজ দেখছিলাম , হঠাৎ এমন কিছু চোখে পড়ল, চোখ না আটকে পাড়ল না। মাত্র নয় মাসের একটা দুধের বাচ্চাকে ধর্ষণ। কিছু দিন আগে একটা ঘটনা হয়েছে ভারতে। বুকটা দরফর করে উঠলো। আমি একজন মা, আমারও একটা বিশ মাসের কন্যা সন্তান আছে। আমি বুঝি মা বাবার কষ্ট।

আপন চাচা এমন করেছে, ভাবা যায়?

“একটা পুতুল আল্লাহর দান” ফুটফুটে নিষ্পাপ একটা বাচ্চা নয় মাসের, কেমন করে তাকে দেখে তোদের পুরুষত্ব জাগে” কেমন করে তোরা ৯০ বছরের বৃদ্ধাকেও ছাড়িস না।

আজ দাদির কথাটা খুব মনে পড়ছে, দাদি বলতো “মাইয়া মানুষ তো মাইয়া মানুষ”

দাদি খুব পর্দাশীল একজন মানুষ ছিলেন। আমি বলতাম দাদি তোমার দিকে কে তাকাবে তুমি বুড়ি হয়ে গেছ, দাদি বলতো তুই বুঝবি না।

দাদি তুমি নেই, তোমার কথা ঠিকই রয়ে গেছে। আজকের নিউজটা দেখে বুক ফেটে কান্না আসছে। বাবা – মা দুজনেই কান্না করছে। মা বর্ণনা দিচ্ছে রক্তাক্ত সে বাচ্চাটার তোয়ালে পেছিয়ে ছোট্ট মেয়েকে নিয়ে আসার কথা।

কেমন দেশে বাস করি আমরা, আমার তো ভয় হয় মেয়েকে বাহিরে নিতে। কিন্তু আজতো সন্তান আমার ঘরেও নিরাপদ নয়।

কি দোষ ছিল তার?

কেমন কষ্ট হচ্ছে, লিখতে পারছি না, হাত কাপছেঁ, কি লিখছি তাও জানিনা।

কোথায় বাস করি আমরা, কারো কোন বিচার কেন হয় না?

এবার এমন বিচার হোক যেন কেউ কখনো আমাদের সন্তানদের দিকে কুনজরে তাকানোর সাহসও না পায়, ধর্ষণ এর চিন্তাও যাতে না করে। আল্লাহ আমাদের মাফ কর। আল্লাহ আমাদের রক্ষা কর।

Facebook Comments